ই-কমার্স অনলাইন বিজনেস ও আইডিয়া

উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার গল্প

 

সামাজিক যােগাযােগ মাধ্যম ফেসবুকে নারী উদ্যোক্তাদের উপস্থিতি ক্রমশ বাড়ছে। ই-কমার্স অ্যাসােসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)-এর তথ্য অনুযায়ী, দেশে ২০ হাজারের বেশি ফেসবুক পেজে কেনাকাটা চলছে। এর মধ্যে ১২ হাজারের বেশি পেজ চালাচ্ছে নারীরাফেসবুককে মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করে স্বল্প পুঁজিতেই উদ্যোক্তা হয়ে উঠছেন নারীরা।

ই-ক্যাবের তথ্য অনুযায়ী, বিগত ২০১৯ সালে এক বছরে ই-কমার্স খাতে লেনদেন হয়েছে ১৩ হাজার ১৮৪ কোটি টাকা। করােনাকালে গতবছরে এটি দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৬১৬ কোটি টাকা। ঈদসহ যেকোনাে উৎসবেএ লেনদেন বাড়ে।নারী উদ্যোক্তাদের কেউ পােশাক, কেউ গয়না, কেউ হাতে তৈরি জিনিস,কেউ তৈরি খাবারসহ নানা পণ্য বিক্রি করছেন। অনেকে দেশীয় সংস্কৃতিকেতুলে ধরার কাজ করছেন।

কেউ শৌখিন পণ্য নিয়ে ব্যবসায় নেমেছেন। এইনারীরা শিক্ষিত। সংসারের চাপসহ নানা সমস্যায় অনেকের পক্ষে চাকরি করাসম্ভব হয়নি। অনেকে নিজে ঐকিছু করবেন বলে বদ্ধপরিকর। ফলে সংসার সামলানাের পাশাপাশি স্বাধীন এ ব্যবসায় আগ্রহ বাড়ছে নারীদের।

এঁদের মতােনই অনলাইন উদ্যোক্তা এক তরুণ আমি শাকিলা জাফর
জেসি। পড়াশুনা করার সময়ই যুক্ত হই অনলাইন ব্যবসায়। অনলাইনে আমারপেজের নাম জেসি’স। সহকারী নিয়ে নিজেই পণ্য বিক্রি করি। আমার মতে,ক্রেতার চাহিদাকে গুরুত্ব দিতে হবে। ক্রেতার সন্তুষ্টি ও বিশ্বাস অর্জন করতেপারলে এ ব্যবসায় ভালাে করা যায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.